পর্তুগালে ফিলিস্তিনিদের সমর্থনে বিক্ষোভে প্রবাসী বাংলাদেশিদের অংশগ্রহণ - MB TV

পর্তুগালে ফিলিস্তিনিদের সমর্থনে বিক্ষোভে প্রবাসী বাংলাদেশিদের অংশগ্রহণ

ডেস্ক নিউজ
আপডেটঃ মে ১৮, ২০২১ | ১:২৮ 104 ভিউ
ডেস্ক নিউজ
আপডেটঃ মে ১৮, ২০২১ | ১:২৮ 104 ভিউ
Link Copied!

 

ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকায় ইসরায়েলের টানা ক্ষেপণাস্ত্র ও বিমান হামলার প্রতিবাদে চলছে বিশ্বজুড়ে বিক্ষোভ। ইউরোপের ফ্রান্স, জার্মান, বেলজিয়াম, ইংলেন্ড, ইতালিসহ বিশ্বের অন্য দেশগুলোর মতো আটলান্টিক পাড়ের দেশ পর্তুগালের রাজধানী লিসবন ও বন্দর নগরী পোর্তোয় ফিলিস্তিনে হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ হয়েছে।

 

বিজ্ঞাপন

পর্তুগালের স্থানীয় সংগঠন জেনারেল কনফেডারেশন অফ পর্তুগিজ ওয়ার্কার (সিজিটিপি), পর্তুগিজ কাউন্সিল ফর পিচ অ্যান্ড কো-অপারেশন (সিপিপিসি) এবং এম.পি.পি.এম ফিলিস্তিনের পক্ষে ‘মুভমেন্ট ফর দ্যা রাইট অফ দ্যা প্যালেস্টাইন’ ব্যানারে সোমবার (১৭ মে) বিকেল ৬টায় লিসবনের মাতৃ মনিজ পার্ক ও পোর্তোর প্রাচা দা প্যালেস্টাইট (রুয়া ফারনান্দেজ তোমাস) স্থানে উক্ত বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করে।

ইসরায়েলি আগ্রাসনের বিরুদ্ধে ফিলিস্তিনিদের প্রতি সহানুভূতি জানিয়ে পর্তুগিজ, মধ্যপ্রাচ্য, অফ্রিকা, এশিয়ার জনগনের পাশাপাশি প্রবাসী বাংলাদেশিসহ নানা শ্রেণি-পেশার হাজার নারী, পুরুষ, শিশুরা রাজধানী লিসবনের ডাউন টাউনের  মাতৃমনিজ পার্কের সামনে অনুষ্ঠিত সমাবেশে পর্তুগাল ও ফিলিস্তিনির পতাকা নিয়ে বিক্ষোভ সমাবেশে অংশ নেয়।

 

বিজ্ঞাপন

এসময় ইসরায়েলি বাহিনীর অবৈধ ও অমানবিক আচরণ এবং হামলার নিন্দা জানিয়ে ফিলিস্তিনের জনগণের প্রতি ভালোবাসা ও পূর্ণ সমর্থন জানিয়েছেন স্থানীয় পর্তুগিজসহ বিভিন্ন দেশের অভিবাসীদের ফ্রী প্যালেস্টাইন, ভিভা প্যালেস্টাইন এমন স্লোগানে স্লোগানে মুখরিত হয়ে উঠে মাতৃ মনিজ এলাকার অলি গলি থেকে মহাসড়কগুলো।

 

সমাবেশ বিক্ষোভকারীদের উদ্দেশ্যে আয়োজনকারী সংগঠনগুলোর শীর্ষ স্থানীয় নেতৃবৃন্দগণ গাজায় ইসরায়েলি হামলাকে ‘গণহত্যা’ হিসেবে আখ্যা দিয়ে মার্কিন প্রশাসনের ইজরাইলকে তাদের নগ্ন সমর্থন প্রত্যাহার করে শান্তি স্থাপন করার আহ্বান জানান। সেই সাথে ফিলিস্তিনিদের প্রতি সমর্থন ও উৎসাহ দেওয়ার জন্য সমাবেশে আগতো সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

 

তবে পর্তুগালের প্রবাসী বাংলাদেশিরা এ ধরনের প্রতিবাদ-সমাবেশে তারা ফিলিস্তিনিদের প্রতি সমর্থন জানাতে বেশ উৎসাহ নিয়ে উপস্থিত হয়েছিলো। তাদের মধ্যে বিক্ষোভে অংশ নেওয়া প্রবাসী নারী উদ্যোক্তা ও লেখিকা ফৌজিয়া খাতুন রানা বলেন, ইসরায়েলি বাহিনীর এমন বর্বর হামলা আর গণহত্যার পর কোনো বিবেকবান মানুষ প্রতিবাদ না জানিয়ে পারে না। একজন মানুষ ও মুসলিম হিসেবে ইসরায়েলের বর্বরোচিত হামলার নিন্দা জানাতে এবং ফিলিস্তিনিদের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করতে সমাবেশে এসেছি।

 

ফ্রীল্যান্স ফুড রাইডারে কর্মরত প্রবাসী তারেক ও আরমান বলেন, কাজ সব সময় করা যায় তবে আজ ফিলিস্তিনিদের প্রতি সমর্থন জানাতে এখানে আসতে পারায় আনন্দিত  কারন, এরকম কঠিন সময়ে আমাদের প্রতিবাদ ফিলিস্তিনের জনগণের মনোবল বাড়িয়ে তুলতে সহায়তা করবে বলে মনে করি।

 

উল্লেখ্য, অধিকৃত পূর্ব জেরুসালেমে আল-আকসা মসজিদে সংঘর্ষকে কেন্দ্র করে গত ১০ মে থেকে গাজায় ইসরায়েল বাহিনী নিরীহ ফিলিস্তিনিদের উপর হামলা শুরু করে। গাজায় গত এক সপ্তাহ ধরে ইসরায়েলের হামলায় এখন পর্যন্ত ৪১ শিশুসহ দুই শতাধিক ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন প্রায় এক হাজারের ও বেশী।

বিষয়ঃ